প্রথম পাতা » মধু » সুন্দরবনের খলিশা এবং গরান ফুলের মধু



পন্যের নাম: সুন্দরবনের খলিশা এবং গরান ফুলের মধু

পন্য ক্রমিক নং: ৭৫

বিস্তারিত: দেশে মধু উৎপাদনের অন্যতম প্রধান ক্ষেত্র হচ্ছে সুন্দরবন। ১৮৬০ সাল থেকে সুন্দরবনে মধু সংগ্রহ করা হয়। বনসংলগ্ন একটি ক্ষুদ্র গোষ্ঠী বংশপরম্পরায় মধু সংগ্রহ করে। এদেরকেই মৌয়াল বলা হয়। দেশে উৎপাদিত মোট মধুর ২০% সুন্দরবনে পাওয়া যায়। সুন্দরবনের সবচেয়ে ভালো মানের মধু খলিশা ফুলের মধু । মানের দিক থেকে এরপরেই গরান ফুলের মধু।

মধু সংগ্রহের জন্য প্রতিবছরের এপ্রিল মাস থেকে তিন মাসের জন্য বন বিভাগ মৌয়ালদের অনুমতিপত্র (পাস) দেয়। আর তখন থেকেই মধু সংগ্রহের কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ে মৌয়ালরা।
পরিচ্ছন্নভাবে মধু সংগ্রহ এবং এর গুণগত মানও বজায় রাখার জন্য বেসরকারি সংগঠনগুলো মৌয়ালদের যন্ত্রপাতি বিতরণ করছে।

আপনি জানেন মধু কী ?
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং খাদ্য ও কৃষি সংস্থার মতে মধু হচ্ছে এমন একটি মিষ্টি জাতীয় পদার্থ যা মৌমাছিরা ফুলের পুষ্পরস অথবা জীবন্ত গাছপালার নির্গত রস থেকে সংগ্রহ করে মধুতে রূপান্তর করে এবং সুনির্দিষ্ট কিছু উপাদান যোগ করে মৌচাকে সংরক্ষণ করে।

কেন সুন্দরববনের মধু এত গুরুত্বপূর্ণ?
মধু শক্তি প্রদায়ী, হজমে সহায়তা, কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে, ফুসফুসের যাবতীয় রোগ ও শ্বাসকষ্ট নিরাময়ে করে। মধুতে রয়েছে ভিটামিন যা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসাবে কাজ করে। মধুতে প্রায় ৪৫টি খাদ্য উপাদান থাকে।

খাবারের তালিকাভুক্ত ৩৫ ধরনের পণ্যে শতকরা ৪০ ভাগ ভেজালের সন্ধান পেয়েছে জনস্বাস্থ্য ইন্সটিটিউট (আইপিএইচ) এবং এর মধ্যে ১৩টি পণ্যে ভেজালের হার প্রায় শতভাগ।

দর: ৬৫০ টাকা

ষ্টক: ২০০ কেজি

পন্য সংযুক্তির তারিখ: ০৯ জানুয়ারী ২০২০

পণ্যের ধরণ: মধু

পন্য প্রাপ্তির স্থান: সাতক্ষীরা




আরো কিছু পন্য